শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং, ,

 

ভালো লাগবে সবকিছু

‘কিছুই ভালো লাগে না’ বা ‘কিছুই করতে ইচ্ছা করে না’ অনেক সময় নানা চাপের কারণে খানিকটা ঝিমিয়ে পড়লে আমরা এ ধরনের কথা বলি। আপনি যদি একটা দীর্ঘ সময় ধরে এই অনুভূতির ভেতর দিয়ে যেতে থাকেন, তবে এখনই সময় সচেতন হওয়ার। বেশির ভাগ সময় দেখা যায়, দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন বিষয়ে একঘেয়ে হয়ে যাই বা কর্মক্ষেত্রে দিনের পর দিন অপছন্দের কাজ করতে হচ্ছে, সে ক্ষেত্রেও এমনটা হতে পারে।
এসব ক্ষেত্রে নিজেকে নব উদ্যমে ফিরিয়ে আনতে কয়েকটা বিষয়ের প্রতি লক্ষ রাখতে বলেছেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘আমাদের সামনে যে চ্যালেঞ্জগুলো আসে, সেগুলো নিয়ে আমাদের হয় আগ্রহ কম থাকে, না হয় আমাদের প্রস্তুতি কম থাকে। যার কারণে আমরা পিছিয়ে আসি। ধীরে ধীরে আমাদের আশপাশের অন্যান্য বিষয় নিয়েও একধরনের খারাপ লাগা কাজ করে। তাই নিজেকে নব উদ্যমে ফিরিয়ে আনতে প্রথমেই জানতে হবে আমার জীবনে কাজটির গুরুত্ব কতটুকু এবং কাজটির ফলাফল কেমন হবে। শুধু তা-ই নয়, এ ক্ষেত্রে সময়জ্ঞানও অনেক জরুরি। কাজটি যেমনই হোক, আপনি যখনই কাজটি সময়ের মধ্যে শেষ করতে সক্ষম হবেন, তখনই আপনার মাঝে একটা ভালো লাগা কাজ করবে।’
যেসব কাজের চর্চা আপনাকে ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করতে পারে—

কঠিন দিয়েই শুরু
নতুন উদ্যমে ফিরে আসতে কঠিন বা আপনার অপছন্দের কাজটি দিয়েই দিন শুরু করতে পারেন। যেহেতু কাজটি আপনার ভালো লাগার জায়গায় নেই, সেহেতু আপনি অবশ্যই চাইবেন কাজটি যত দ্রুত সম্ভব শেষ করতে। শুধু তা-ই নয়, অপছন্দের কাজ বা কঠিন কাজ কিন্তু কেউই বারবার করতে পছন্দ করে না। তাই পুরো মনোযোগ দিয়ে একবারে কাজ শেষ করবেন।

সময় ধরে কাজ
কাজ করার আগ্রহ যদি একেবারেই না থাকে, তবে চেষ্টা করুন সময় ধরে কাজ করার। ধরা যাক, প্রথম দিকে আপনি ঠিক করলেন টানা ২৫ মিনিট আমি কাজ করব এবং এই ২৫ মিনিটে কাজের বাইরে আর কিছুই করব না। ২৫ মিনিট পর আমি একটু বিরতি নেব, এভাবেই ২৫ মিনিটে সারা দিনের কাজ ভাগ করে নিন। প্রথম প্রথম ২৫ মিনিট পুরোপুরি না-ও হতে পারে। তবে ধীরে ধীরে আপনার কাজের গতি বাড়তে শুরু করবে। শুধু তা-ই নয়, একটা সময় আপনি দেখবেন আপনার কাজের প্রতি মনোযোগ এবং আগ্রহ দুটোই বেড়ে গেছে।

সাহায্য নিন
অনেক সময় আমরা একা একা নিজেদের সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠতে পারি না। আমাদের তখন আশপাশের মানুষের সাহায্য দরকার হয়। মনে রাখুন, কারও সাহায্য চাওয়া খারাপ কিছু নয় বা এতে করে আপনার নিজেকে ছোট ভাবার কোনো অবকাশ নেই। আপনি যেহেতু কাজ করতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন, সেহেতু আপনার বন্ধু বা বড় কাউকে বলুন আপনার কাজটি পর্যবেক্ষণ করতে। আপনার কাজটির ভুলত্রুটি ধরিয়ে দিতে। এতে আপনার কাজের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যাবে। একান্তই যদি আপনি কারও দ্বারা প্রভাবিত হতে না চান, তবে নিজেই পর্যবেক্ষণ করতে পারেন নিজেকে।

সময়ের কাজ সময়ে
আমাদের কাজের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলার আরেকটি অন্যতম কারণ সময়ের কাজ সময়ে না করা। যখনই আমরা একটা কাজ ফেলে রাখি, তখনই সেই কাজের চাপ আমাদের ভালো না লাগার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই চেষ্টা করুন ‘পরে করব’ এই ধারণা থেকে বেরিয়ে আসার। নিজেকে বলুন, আমি আজই করব এবং সঠিকভাবেই কাজটি করব।

শান্তভাবে শুরু হোক
কোনোভাবেই যখন ভালো লাগছে না, তখন বুঝতে হবে আমার মাঝে একটা অস্থিরতা রয়ে গিয়েছে। নিজের মাঝে স্থিরতা আনতে প্রকৃতির কাছাকাছি কোথাও থেকে বেড়িয়ে আসতে পারেন অথবা কোনো এক ছুটির দিনে নিজেকে সময় দিতে পারেন। ঘুম থেকে উঠেই এক কাপ চা কিংবা কফি পান করতে পারেন জানালার পাশে কিংবা বারান্দায় বসে। এরপর তৈরি করুন কী কী কাজ এখনো পড়ে আছে, তার তালিকা ঠিক করুন, এর মাঝে কোনটি করতে আপনি প্রস্তুত। শুরু করে দিন কাজটি। একটা সময়ের পর দেখবেন, ভালো লাগছে সবই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরও খবর