মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ ইং, ,

 

কিভাবে নিজের যত্ন নিবেন

যত্ন নেবার জন্য খুব কম সময় কিন্তু সচেতনতা প্রয়োজন। শরীর এবং নিজের মনকে ভালো রাখতে হলে কিছুটা যত্ন দরকার, মনকে ভালো রাখতে, চাই নিয়মিত যত্নের অনুভূতি। নিজের প্রতি ব্যক্তি যত্নশীল হওয়ার অর্থ, যত্নের সাথে উঁকি দেওয়া- শারীরিক, আধ্যাত্মিক, আর মানসিক চাহিদার ব্যাপারে। কোন অজুহাত ছাড়ায় ইচ্ছাকৃত পদক্ষেপ নেওয়া। মনকে ভালো রাখতে হলে প্রিয় কাজগুলো করতে হবে আর শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য সচেতনতার বিকল্প নেই।
img20171129_012134
তাই আসুন কতকগুল টিপস জেনে নেই ‘নিজের মন আর শরীরের’ যত্ন কিভাবে নেওয়া যায়। বিশেষজ্ঞদের মতে হাফিংটন পোস্ট ও উইকিহাউ জানান, ‘মনের যত্নের প্রতি প্রত্যেকের সময় রাখা উচিত, সারাদিনে অল্প হলেও সময় দিন।’ অজস্র কাজে ব্যস্ত থাকার কারণে আমরা নিজেদের ব্যাপারে অসচেতন হয়ে পড়ি। শত ব্যস্ততার মাঝেও নিজেকে, নিজের অনুভূতিকে সতেজ রাখবে তেমন কয়েকটি টিপস।

টিপস:
img20171129_011249
রাতের আকাশে বসুন
১.মনের সতেজতার নানান গল্প জওআছে, আছে ত তাই না। নিজেকে মধ্যরাতের তারার ঝাঁকে খুঁজুন, বসে পড়ুন রাতের নীলিমায়, আগে হয়ত কখনও দেখা হয়নি নিজের উজ্জল নক্ষত্রের প্রতিবিম্ব রূপকে। মনের ঘরে আসুক প্রশান্তি ঝড়।
img20171129_011723
প্রকৃতিকে স্পর্শ করুন অনুভবে
২.অনুভূতি ত গাছের পাতার ডগায় বসে থাকা বিন্দু কণা জল। প্রতিটি স্পর্শ যেন হয় অনুভবের গল্প। নিজের ঘরের টপে বেড়ে ওঠা গাছটিকে পানি দেবার সময় আলত করে স্পর্শ করুন। নিজের প্রিয় বিষয়গুলকে ধরার সময় খেয়াল। যত্ন নিন নিজের অনুভূতির।
img20171129_011659
ইলেকট্রনিক ডিভাইস থেকে কিছুটা সময় দূরে থাকুন
৩.নিজের যত্ন নেবার সময় কখন কখন নিজেকে ইলেকট্রনিক ডিভাইস(মোবাইল, ইন্টারনেট, এবং টেলিভিশন) থেকে দূরে রাখুন। ভাবুন নিজেকে নিয়ে।
img20171129_011605
লিখুন নিজের সাফল্য
৪.খাতা-কলম নিয়ে বসুন। আপনমনে কিছু ইতিবাচক দিক লিখুন। সাফল্য পেতে চাইলে আপনাকে আরো কী কী করতে হবে তারও একটি তালিকা তৈরি করে ফেলুন। দেখবেন ভালো লাগবে। প্রতিদিন ইতিবাচক বিষয়গুলো নিয়ে ভাবি কি কিছুক্ষণ? নিজের আনমনা অনুভূতিগুলও লিখে রাখতে পারেন ডায়েরির পাতায়।
img20171129_011532
ছুটি দিন চিন্তাকে
৫.যে চিন্তারা আমাকে নিয়ন্ত্রণের বাইরে ভাবতে বাধ্য করে, যন্ত্রণার সঙ্গী করে সেটি নিয়ে চিন্তা কিছুক্ষণ ছেড়ে দেই। যেতে দিন সময়। এটা হতে পারে সম্পর্কের ক্ষেত্রে বা অথবা দৈনন্দিন কাজের ক্ষেত্রে। ভাল রাখতে নিজেকে প্রথমে ভাল রাখার অনুভূতিকে হাতে রাখা।
img20171129_011454
নদীর ধার বা খোলা মাঠে কিছুক্ষণ
৬.চিন্তা বাড়াতে সাহায্য করুন। ভাবুন কোন খোলা প্রান্তে বসে। নয়ত নদীর পাশে নিজেকে কতক্ষণ ছেড়ে দিন।
img20171129_092642
হাটুন আপন মনে
৭.
মন ভালো রাখতে হাটতে পারেন, পারেন কিছু যোগব্যায়ামও করতে শরীরকে ভাল রাখতে। গবেষণায় বলা হয়, নিয়মিত হাঁটা মানসিক চাপকে কমাতে সাহায্য করে। এতে মন ও শরীর ভালো থাকে।
img20171129_093129
মনের ও শরীরের খোরাক জোগাতে কাজ করুন। ব্যস্ত থাকুন নিজের কাজে। মনকে ভালো রাখবে।

ফাতেমা শাহরিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরও খবর