মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ ইং, ,

 

কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ খুব সামান্যই বেড়েছে: আইএলও

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা বা আইএলও তাদের এক বৈশ্বিক প্রতিবেদনে বলছে গত দুই দশকে কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ খুব সামান্যই বেড়েছে।
১৯৯৫ সালের পর কর্মক্ষেত্রে নারী-পুরুষের অংশগ্রহণের পার্থক্য কমেছে মাত্র শূন্য দশমিক ৬ শতাংশ।
আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে আইএলও একটি বৈশ্বিক জরিপ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।
বিশ্বের ১৭৮টি দেশে কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণের হার, কর্মপরিবেশসহ নানা তথ্য সংগ্রহ করে এ প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।
আইএলও’র প্রধান গাই রাইডার বলেছেন “নারীরা এখনও যে উপযুক্ত কাজ খুঁজে পেতে প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছেন তারই প্রমাণ এই প্রতিবেদন। নারীদের চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয়। ১৯৯৫ সাল থেকে নারীদের কর্মক্ষেত্রে অংশগ্রহণের ব্যাপারে যে অগ্রগতি হয়েছে তা একেবারেই প্রান্তিক পর্যায়ে”।
কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ খুব সামান্যই বেড়েছে: আইএলও নারীরা কর্মক্ষেত্রে ও গৃহস্থালী কাজ মিলিয়ে পুরুষের চেয়ে বেশি পরিশ্রম করে থাকেন-আইএলও'র প্রতিবেদন বলছে।
প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ২০১৫ সালে কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ পুরুষদের চেয়ে ২৫ দশমিক ৫ শতাংশ কম ছিল।
১৯৯৫ সালে এ পার্থক্য ছিল ২৪ দশমিক ৯ শতাংশ।
আর এ হার ২০ বছর আগের হারের চেয়ে মাত্র ০.৬ শতাংশ কম।
প্রতিবেদনে আরও বলা হচ্ছে- বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে নারীরাই বেশি বেকারত্বে ভোগেন।
বিশ্বজুড়ে নারী বেকারের হার ৬.২ শতাংশ যেখানে পুরুষদের বেকারত্বের হার ৫.৫ শতাংশ।
চাকরির অভাবে প্রায়ই নারীদের নিম্ন মানের চাকরিতে যোগ দিতে হয়।
এছাড়াও বলা হচ্ছে, উচ্চ ও নিম্ন আয়-সবধরনের আয়ের দেশেই নারীর গৃহস্থালী কাজের জন্য কোনও পারিশ্রমিক হিসেব করা হয় না। মূলত, নারীরা কর্মক্ষেত্রে ও গৃহস্থালী কাজ মিলিয়ে পুরুষের চেয়ে বেশি পরিশ্রম করে থাকেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরও খবর